Dainik Sangbad – দৈনিক সংবাদ
Image default
ট্রেন্ডিং

নবরাত্রির নবম দিনে পুজো হয় দেবী সিদ্ধিদাত্রীর। এই পুজো করলে কি লাভ মেলে

আজ মহানবমী, নবরাত্রিতে প্রথম থেমে ন’‌দিন ধরে দূর্গা মায়ের প্রত্যেকটি রূপের পুজো করতে হবে। ভোগের তারতম্য থাকে, ভিন্ন দিনের ভিন্ন রকম ভোগ দেওয়া হয় এই ন’দিন । দেবী সিদ্ধিদাত্রীর পুজো হয় নবরাত্রির শেষ দুদিন অর্থাৎ নবমী আর দশমী। আসুন এই পুজোর মাহাত্ম্য, আচার ও রীতি দেখে নেওয়া যাক।

দেবী সিদ্ধিদাত্রীর পুজো নবমীতে:

সিদ্ধিদাত্রী রূপ হল নবদুর্গার নবম তথা শেষ রূপ। নবদুর্গার শেষ ও দেবী দুর্গার নবম শক্তি তিনি। সবধরনের সিদ্ধি দান করে থাকেন এই দেবী। আট ধরনের সিদ্ধি তথা অনিমা, মহিমা, গরিমা, লঘিমা, প্রাপ্তি, প্রকাম্য, ইশিত্ব ও বাশিত্বর কথা উল্লেখ রয়েছে মার্কন্ডেয় পুরাণে। সব ভক্ত এবং সাধকদের এই সিদ্ধি প্রদান করেন মা সিদ্ধিদাত্রী। সিংহ মাতার বাহন তবে পদ্মাসনও হন তিনি।

পুরাণের কথা:

দেবী ভগবত্‍ পুরাণে আছে, দেবী পার্বতী কে স্বয়ং মহাদেব সিদ্ধিদাত্রী রূপে পুজো করেছিলেন এবং তার ফলে সকল সিদ্ধি লাভ করেন মহাদেব। সর্ব সিদ্ধি লাভ করেন মহাদেব সিদ্ধিদাত্রীর আশীর্বাদেই।

প্রচলিত কাহিনী:

হিন্দুদের বিশ্বাস, এই দেবীর পুজো নবরাত্রির নবম দিনে করলে এবং সঠিকভাবে পুজো করলে প্রাপ্তি হয় সব প্রকারের সিদ্ধি। মাতা তাঁর ভক্তদের এই দিন বিশেষ ফলপ্রদান করেন।

দেবী সিদ্ধিদাত্রীর রূপ:

সিংহ হলো দেবী সিদ্ধিদাত্রীর বাহন। চারটি ভুজা আছে মায়ের , বাঁ দিকের উপরের হাতে কমলপুষ্প ও নীচের হাতে শঙ্খ আর ডান দিকের উপরের হাতে গদা, আর নীচের হাতে চক্র। মায়ের রূপ এক্ষেত্রে শান্ত।

মায়ের পুজোয় কোন ভোগ:

তিলের তৈরি নাড়ু বা খাবার ভোগ হিসেবে দেওয়ার চল রয়েছে পদ্মাসনে বসা দেবীকে। মনে করা হয়, এতে অপঘাতে মৃত্যু হয় না ভক্তের।

Related posts

আজীবন কালের জন্য করোনা থেকে সুরক্ষা দেবে এই টিকা ; দাবি অক্সফোর্ডের গবেষকদের

News Desk

চালুনির মধ্য দিয়ে চাঁদ দেখে উপবাস ভাঙা হয়! এই করবা চৌথ ব্রতর মাহাত্ম্য কি? জানুন..

News Desk

দুটি করে টিকার ডোজ নিয়েও করোনা আক্রান্ত অন্তত ২৫ শতাংশ স্বাস্থ্যকর্মী, জানাচ্ছে সমীক্ষা

News Desk
0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x