Dainik Sangbad – দৈনিক সংবাদ
Image default
FEATURED ট্রেন্ডিং

টিকটকের ‘ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ’ চ্যালেঞ্জ নিয়ে ঘনিয়ে আসছে মৃত্যু! প্রাণ হারাচ্ছে বহু তরুণ

ভিডিয়ো বানানোর প্ল্যাটফর্ম হিসেবে বেশ কম সময়ের মধ্যেই জনপ্রিয় হয় টিকটক (TikTok)। ব্যবহারকারীদের জন্য চমৎকার চমৎকার ফিচার নিয়ে আসে এই প্ল্যাটফর্মটি। রোজ রোজ নিত্য নতুন ট্রেন্ড ফলো করে ভাইরাল হয় টিকটক ভিডিয়ো। কিন্তু জনপ্রিয় সেই প্ল্যাটফর্মই যে কম বয়সী নাবালক নাবালিকার মৃত্যুর কারণ হবে, সেটা বোঝা যায়নি। চীনের এই ভিডিয়ো তৈরির প্ল্যাটফর্মের ‘ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ’ (Blackout Challenge) নিয়ে তাই এখন প্রচুর বিতর্ক দানা বেঁধেছে। কিন্তু কী এই ‘ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ’, যার কারণে এভাবে কিশোর কিশোরীরা প্রাণ হারাচ্ছে। পড়ুন বিস্তারিত..

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন টিক-টকে জনপ্রিয় হওয়া ‘ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ’-এ অংশ নেওয়ার সময় দুটি শিশু মারা যাওয়ার পরে টিক-টকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পিতামাতারা শিশুদের মৃত্যুর জন্য টিক-টককেই দায়ী করেছেন। তারা বলেছেন যে অ্যাপ্লিকেশনটি চ্যালেঞ্জের জন্য কোনও সতর্কতা জারি করেনি, যা শিশুদের মৃত্যুর দিকে নিয়ে গেছে।

কি এই ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ?

Tik-Tok-এ বেশ কয়েক মাস ধরে চলা এই চ্যালেঞ্জে, আপনাকে আপনার শেষ সীমা পর্যন্ত আপনার শ্বাসবন্ধ করে রাখতে হবে। শিশুরাও এই চ্যালেঞ্জে অংশগ্রহণ করে কারণ কোনো ধরনের বয়স-সীমাবদ্ধতা নেই। তারা এটি দিয়ে তাদের শারীরিক ক্ষমতা পরীক্ষা করে এবং অন্যদের অংশগ্রহণের জন্য অনুপ্রাণিত করে বলে জানা গেছে।

TikTok “বারবার এবং ইচ্ছাকৃতভাবে” নিজেদের প্ল্যাটফর্মে ‘ফর ইউ ট্যাবে’ এই ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ কে সামনে এনে প্রমোট করেছে যা ব্যবহারকারীদের এতে অংশ গ্রহণে উৎসাহিত করছে। গত বছর টেক্সাস এবং উইসকনসিনের একজন ৮ বছর বয়সীর প্রাণ কেড়ে নিয়েছে এই চ্যালেঞ্জ। বৃহস্পতিবার লস এঞ্জেলেস রাজ্যের আদালতে দায়ের করা একটি পিটিশন অনুসারে একটি ৯ বছর বয়সী মেয়েও মারা গেছে এর কারণে।

ইউএস সোশ্যাল মিডিয়া ভিক্টিমস ল সেন্টারের কর্মকর্তা ম্যাথিউ বার্গম্যান বলেছেন যে এই দুই মেয়ের মৃত্যুর জন্য টিকটককে দায়ী করা উচিত। এই অ্যাপ্লিকেশনটি এই ধরনের চ্যালেঞ্জগুলিতে লক্ষ লক্ষ এবং কোটি টাকা বিনিয়োগ করছে, যা শিশু এবং যুবকদের জন্য মারাত্মক প্রমাণিত হচ্ছে।

যদিও এই বিষয়ে টিক-টক থেকে এখনও কোনও বিবৃতি আসেনি। আদালতে দায়ের করা পিটিশনে স্পষ্টভাবে লেখা আছে যে Tik-Tok-এর অ্যালগরিদম বারবার অ্যাপের ম্যান পেজে ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ নিয়ে আসছে। এই চ্যালেঞ্জের কারণে গত বছর দুই মেয়ে শ্বাসরোধে মারা যায়। তাদের মধ্যে একজন চ্যালেঞ্জটি সম্পূর্ণ করার জন্য একটি দড়ি ব্যবহার করেছিল এবং অন্যটি কুকুরকে বাঁধার বেল্ট ব্যবহার করেছিল।

Related posts

আগামী ১৪ দিনের জন্য পশ্চিমবঙ্গে ঘোষিত হল কড়া লকডাউন: জানুন বিস্তারিত

News Desk

রান্না পছন্দ হয়নি, আফগান মহিলাকে জীবন্ত জ্বালিয়ে পুড়িয়ে মারল নৃশংস তালিবান জঙ্গীরা

News Desk

খেয়ে উঠলেই ক্লান্ত লাগে , ঘুম পায়। কেন হয় এমনটা জানেন? কাটাবেনই বা কিভাবে! রইল উপায়

News Desk