Dainik Sangbad – দৈনিক সংবাদ
Image default
FEATURED ট্রেন্ডিং

নিজেই নিজের প্রতি মুগ্ধ! ভালোবেসে নিজেকেই নিজে বিয়ে করছেন এই তরুণী

এ মাসেই বিয়ে করতে চলেছেন ২৪ বছর বয়সী গুজরাট নিবাসী তরুণী ক্ষমা বিন্দু (Kshama Bindu)। বিয়ের যাবতীয় প্রস্তুতি প্রায় শেষ, কিন্তু তার বিয়েতে একটাই ভিন্নতা থাকবে যে, তাতে কোনো ‘বর’ থাকবে না। তবে এতে বিয়ের অনুষ্ঠানে কোনো পার্থক্য হবে না কারণ গুজরাটের ভাদোদরার বাসিন্দা বিন্দু নিজেই নিজেকে বিয়ে করতে চলেছেন। ১১ই জুন অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া তার বিয়েতে যাবতীয় রীতিনীতি মেনে সাত পাঁকে প্রদক্ষিণ ও সিঁদুর লাগানোসহ যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা সবই সম্পন্ন হবে।

বিন্দুর বিয়ে গুজরাটে আত্ম-বিবাহ বা ‘একক বিবাহ’-এর প্রথম উদাহরণ বলে মনে করা হয়। বিন্দু তার সিদ্ধান্তকে আত্মপ্রেমের কারণ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। টাইমস অফ ইন্ডিয়ার সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, “আমি কখনোই বিয়ে করতে চাইনি। কিন্তু আমি বিয়ের পাত্রী হতে অবশ্যই চেয়েছিলাম। তাই নিজেকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

‘হয়তো আমিই প্রথম’

বিন্দু বলেছিলেন যে তিনি এটি সম্পর্কে ব্যাপকভাবে অনলাইনে পড়েছেন, কিন্তু দেশে একবিবাহী (sologamy) বিয়ের অন্য কোনো উদাহরণ খুঁজে পাননি। ক্ষমা বিন্দু বলেন “সম্ভবত আমিই প্রথম একজন যে কিনা আমার দেশে আত্মপ্রেমের উদাহরণ স্থাপন করেছেন।”

এটিকে “আত্ম-গ্রহণযোগ্যতার কাজ” হিসাবে বর্ণনা করে কনে-বধূ বলেন, “স্ব-বিবাহ হল নিজের প্রতি একটি অঙ্গীকার এবং নিজের প্রতি নিঃশর্ত ভালবাসা। লোকেরা যাকে ভালবাসে তাকেই বিয়ে করে। আমি নিজেকে ভালবাসি এবং সেই কারণেই এই বিয়ে হচ্ছে।”

‘নারী গুরুত্বপূর্ণ’

অনেকে স্ব-বিবাহকে ‘পাবলিসিটি স্টান্ট’ বলতে পারেন, বিন্দু বলেন, “আমি সত্যিই যা চিত্রিত করার চেষ্টা করছি তা হল একটি নারীর গুরুত্ব।” বিন্দু একটি প্রাইভেট ফার্মে কাজ করে। এ সিদ্ধান্তে তার বাবা-মা তার সঙ্গে আছেন বলে জানান তিনি। সমস্ত রীতিনীতি পালনের পাশাপাশি কনে নিজের কাছে পাঁচটি প্রতিজ্ঞাও লিখেছে। তার বিয়ের অনুষ্ঠানের পর, বিন্দুও গোয়ায় দুই সপ্তাহের হানিমুনে যাচ্ছেন।

Related posts

কান ধরে, হাত জোড় করে… গলায় প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে থানায় পৌঁছলেন ২ ব্যাক্তি! কি কারনে

News Desk

কবুল না! বর এর অবস্থা দেখে শেষ মুহূর্তে মৌলবী কে বিয়ে না করার সিদ্ধান্ত জানালো কনে

News Desk

মানুষের জিভে গজাচ্ছে ‘কালো রোম’! অদ্ভুত ধরনের রোগে তাজ্জব চিকিৎসকরাও

News Desk