Dainik Sangbad – দৈনিক সংবাদ
Image default
FEATURED ট্রেন্ডিং

ঘাড়ের ট্যাটু নজরে পড়তেই চক্ষু চড়কগাছ পুলিশের। সঙ্গে সঙ্গেই তুলে নিয়ে গেল জেলে

অপরাধী কে সনাক্ত করতে কত কি না করে থাকে পুলিশ। কিন্তু অপরাধী শত চেষ্টা করলেও মাঝে মাঝে ছোট্ট ছোট্ট অসাবধানতায় ধরা পড়ে যায়। সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা সামনে এসেছে।

দিল্লি পুলিশের অপরাধ শাখা দুটি খুনের মামলায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। এই অপরাধীর নামে আদালতে NBW জারি করা হয়। আলিগড় রেলস্টেশন থেকে দিল্লির গীতা কলোনির বাসিন্দা ২৭ বছর বয়সী সুজিত কুমারকে গ্রেফতার করেছে ক্রাইম ব্রাঞ্চ। খুন, খুনের চেষ্টা ও এনডিপিএস আইনের একটি মামলায় ওয়ান্টেড ছিলেন সুজিত। তার গলায় ট্যাটু দেখে পুলিশ তাকে চিনতে পেরে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Up teacher arrested for smashing students face with cake

তথ্যমতে, পুলিশ খবর পায়, হত্যা-চেষ্টাসহ একাধিক মামলায় জড়িত সুজিত নামে এক অপরাধীকে আলিগড়ে দেখা গেছে। তিনি অস্ত্র আইন, হত্যাচেষ্টা মামলায় ওয়ান্টেড। গত বছর কর্কড়ডুমা আদালত তাকে অপরাধী ঘোষণা করেছিল। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ আলিগড় রেলস্টেশনে পৌঁছায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আসামি ট্রেনের বগিতে লুকানোর চেষ্টা করলেও দলের এক সদস্য তার ঘাড়ে ট্যাটু দেখে তাকে চিনতে পারেন।

অভিযুক্ত সুজিত কুমার রেলস্টেশন থেকে পালানোর চেষ্টা করলেও পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। সুজিত কুমারের বিরুদ্ধে এনবিডব্লিউও জারি করেছে আদালত। অভিযুক্ত সুজিত কুমার দিল্লি দিল্লির গীতা কলোনিতে থাকেন। তিনি মূলত বিহারের বাসিন্দা। তিনি একাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। ২০১৪ সালে পড়াশোনার সময় একটি হত্যা মামলার আসামি ছিলেন তিনি। এরপর তিনি এনডিপিএস আইন, ডাকাতি, খুন, খুনের চেষ্টা ও চুরির বিভিন্ন মামলায় জড়িত ছিলেন।

Related posts

অষ্টমী নয় বীরাষ্টমী! ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে আন্দোলনের হাতিয়ার ছিল বাগবাজার সার্বজনীন পুজো

News Desk

বীরভূমের বাঙালি বিজ্ঞানীর আবিষ্কার! ফেলে দেওয়া প্লাস্টিক ব্যাবহার করে প্রস্তুত হচ্ছে পেট্রল

News Desk

চাকরির জন্য করতে হচ্ছে সেক্স! এদেশে অনেক মেয়েই যেভাবে শিকার হচ্ছে এইডসের

News Desk